সোমবার, ২১ Jun ২০২১, ০১:১২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মুন্সীগঞ্জে ফুটবল লীগ টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন দেশকে এগিয়ে নিতে নারী উদ্যোক্তাদের ভূমিকা।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন রোয়াংছড়িতে ২য় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছেন ১২০টি গৃহহীন পরিবার।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন কালিগঞ্জে শেখ হাসিনা’র উপহার হিসেবে ২০টি ঘর পেল ভূমিহীন অসহায়রা মুজিব শতবর্ষে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না-প্রধানমন্ত্রী।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন সোনারগাঁ থানায় ৩ ঘন্টা ০৫ মিনিটে চুরি মামলার আসামী সনাক্ত।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন সাংবাদিকদের পর্যবেক্ষন কার্ড প্রদানে গড়িমসির অভিযোগ।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন “ক্লিন সাতক্ষীরা গ্রিন সাতক্ষীরা।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন মুন্সীগঞ্জে নতুন ঠিকানা পেলো ৩২৫টি পরিবার।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন সোনারগাঁয়ে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের মাঝে জমিসহ ঘর হস্তান্তর।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন
নড়াইলে ধান রোপণ করে সড়কে অভিনব প্রতিবাদ

নড়াইলে ধান রোপণ করে সড়কে অভিনব প্রতিবাদ

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ

নড়াইলের লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের কাঁচা সড়ক পাকা করার দাবিতে সড়কে ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবা’দ জানিয়েছেন স্থানীয় যুবকেরা। চলমান বর্ষায় রাস্তার বেহা’ল অবস্থা সৃষ্টি হওয়ায় ইউনিয়নের দুটি সড়কে ধানের চারা রোপণ করে এমন অভিনব প্রতিবা’দ জানান যুবকেরা।

জানা যায়, লক্ষীপাশা ইউনের পারমল্লিকপুর -নওয়াপাড়া ৩ কি.মি. ও কোলা-কুচিয়াবাড়ী ৩.৮০ কি.মি. কাঁচা সড়ক বর্ষা মৌসুমে ক’র্দমাক্ত হয়ে চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কগুলোতে যানবাহন চলা তো দূরের কথা পায়ে হেঁটে চলাও যেন দু’ষ্ক’র হয়ে পড়েছে। অবহে’লিত এই অঞ্চলটির এ দু’রবস্থা দেখার যেন কেউ নেই।

আরও জানা যায়, এই দুটি সড়ক দিয়ে ইউনিয়নের অন্তত সাত হাজার লোক যাতায়াত করেন। এই সড়ক ব্যবহার করেই স্থানীয় লোকজন শহরে যাতায়াত করেন। ইউনিয়নের শিক্ষার্থী, কর্মজীবী, নারী-পুরুষ সবাই এই সড়ক দিয়েই তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ও কর্মস্থলে যান। বিভিন্ন সময়ে সড়কটি আধাপা’কা বা পাকা করার আশ্বাস দেয়া হলেও যুগ যুগ ধরেই দুটি সড়কই কাঁচা পড়ে আছে। আর, প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে দু’র্ভোগের যেন সীমা থাকেনা এলাকাবাসীর।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সমাজসেবজ এস.এম নূর মোহাম্মাদের নেতৃত্বে এলাকার যুবকেরা কয়েকবার ইট, বালু দিয়ে রাস্তার কাঁদা সরানোর চেষ্টা করা হয়ছে; কিন্তু তা বেশিদিন টেকেনি। আবার কাঁদা হয়ে গেছে।

স্থানীয় তরুণ সেচ্ছাসেবী মাহমুদ আল হাসান বলেন, এই রাস্তা দুটির অবস্থা এতো খারাপ যে, একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় সাইকেল, ভ্যান নিয়েও চলা যায় না। জীবন জীবীকার তাগিদে বহু ক’ষ্টে পায়ে হেঁটেই আমাদের যাতায়াত করতে হয়। আমার বাপ দাদার আমল থেকে শুনে আসছি রাস্তা পাকা হবে। কিন্তু রাস্তা পাকা করার দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ কখনও দেখিনি। তাই প্রতিবাদ জানাতে এলাকার যুবকেরা রাস্তায় ধান রোপণ করেছে। এলাকাবাসীর দাবি, আমাদের এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা যেন আমাদের ইউনিয়নের এই দুটি গ্রাম্য সড়ক পাকা করার ব্যবস্থা করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান জানান, এই দুটি সড়ক পাকা করা নিয়ে আমরা বারবার বিভিন্ন মহলে চেষ্টা করেছি; কিন্তু কাজ হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com