শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
DC হুমায়ুন কবীর মহোদয়কে আদর্শ ছাত্রবন্ধু ফাউন্ডেশনের অভিনন্দন।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন রাজশাহী মহিলা কলেজের বিভিন্ন কাজ পরিদর্শনে মেয়র লিটন।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন পিআইবির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যানকে বিএমএসএফ’র অভিনন্দন।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন কালিগঞ্জ ফ্রি অক্সিজেন সার্ভিস করোনা রোগীর সেবার পাশাপাশি মাক্স বিতরণে সাড়া ফেলেছে নড়াইলের সাদিয়ার তিনটি স্বর্ণপদক জয়ী।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন আড়ানী মেয়রের ৭২ পাউন্ডের কেক কেটে ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন সাতক্ষীরার নতুন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীরের যোগদান গলাচিপায়  জমিজমা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৫।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন সোনারগাঁওয়ে বাবুল হোসেন গ্রেফতার।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন রাঙামাটি বরকল উপজেলা আহ্বায়ক কমিটির উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন 
সোনারগাঁয়ে ছোট ভাইয়ের ছুরি আঘাতে বড় ভাইয়ের মৃত্যু।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

সোনারগাঁয়ে ছোট ভাইয়ের ছুরি আঘাতে বড় ভাইয়ের মৃত্যু।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

মো:সোহেল খান: শুক্রবার (২৮ মে) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খ-অঞ্চল) মো. বিল্লাল হোসেন, সোনারগাঁও থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ঘটনাস্থলটি বর্তমানে পুলিশি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। পুলিশ জানায়, লাশ টি ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছেন ওসি হাফিজুর রহমান।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের শাহ জামালের ছেলে কিরণ (৩০) দীর্ঘদিন ধরে মাদক সেবন করে আসছে। বিভিন্ন সময়ে মাদকাসক্ত হয়ে তার বাবা মাকে মারধর করে আহত করে। তার অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে ওই পরিবার। মাদকাসক্ত কিরণের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়। গতকাল শুক্রবার জুমা নামাজের পর কিরণ তার বাবা মাকে মাদকের টাকার জন্য অকথ্য ভাষায় গাল মন্দ ও মারধর করতে থাকে। তার মারধরে তার মায়ের হাত  ভেঙ্গে যায়। এক পর্যায়ে কিরণ তার বাবাকে ছুরি নিয়ে মারধর করতে গেলে তার ভাই মেহেদী হাসান ও গাব্বা তার বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে। এসময় তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে কিরণের ছুরি তার পেটে দেবে যায়। ছুরিকাঘাতের ফলে তার দেহ থেকে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়। আহত অবস্থায় কিরণকে আড়াই হাজার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। ঢামেকে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। ঘটনার পর থেকে ওই বাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে কিরণ মাদকসক্ত। তার অত্যাচারে ওই পরিবার অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন সময়ে মাদকের টাকার জন্য তার বাবা মা ও ভাইদের মারধর করতো।
সোনারগাঁও থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান বলেন, নিহত কিরণ মাদকাসক্ত ও বিকৃত মস্তিষ্কের ছিল। বিভিন্ন সময়ে মাদকের টাকার জন্য মা বাবাকে মারধর করতো। মাদকের টাকার জন্য শুক্রবার দুপুরে ছুরি নিয়ে মারধর করতে গেলে ভাইদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে ছুরিকাঘাতে আহত হয়। পরে ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com