শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ১২:১৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
ঢাকায় আসছেন নোরা ফাতেহি।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে নদীর চর থেকে অজ্ঞাত যুবকের অর্ধ গলিত মরদেহ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে দুটি অবৈধ চুনা ফ্যাক্টরির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন  পিরোজপুরে ৪০ লক্ষাধিক টাকার উপকরণ বিতরণ করলেন DC জাহেদুর রহমান পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাসিক উন্নয়ন পর্যালোচনা সভা। হরিপুরে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ইবি প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা শুধু রিপোর্টিংই নয় রান্নাতেও পটু” ভৈরবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক দখলীকৃত ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান কালিগঞ্জে সাবেক সংসদ সদস্য কাজী মোঃ আলাউদ্দীনের দিনব্যাপী জনসংযোগ অভয়নগরে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত
নড়াইলের পল্লীতে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র  দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ জন ৬ জনকে আটক করছে পুলিশ 

নড়াইলের পল্লীতে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র  দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত ২০ জন ৬ জনকে আটক করছে পুলিশ 

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি নড়াইল থেকে:
নড়াইলের কালিয়ায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে বিবদমান দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে আহত হয়েছে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন।  দুপুরে উপজেলার পাটেশ্বরী বাজারে এ সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।
আহতদের মধ্যে ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার মহিষখোলা গ্রামের মিকাইল মোল্যার ছেলে মিরাজ মোল্যার নিকট প্রতিবেশী পাটেশ্বারী গ্রামের মিজানুর শেখের ছেলে শারাফত শেখের ৫০০ টাকা পাওনা ছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই পাওনা টাকা চাইতে গেলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা, হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। কিন্তু ওই ঘটনার পর থেকে দুই দলের মাঝে শুরু হয় রণপ্রস্তুতি।
ওই ঘটনার প্রেক্ষিতে বুধবার দুপুর ৩ টার দিকে বিবদমান মহিষখোলা গ্রামের বাদশা মোল্যা গ্রুপ এবং পাটেশ্বরী গ্রামের সেলিম শেখ গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে ঢাল, সড়কিসহ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে দুই গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময়  উভয় পক্ষের প্রায় ২০ ব্যক্তি আহত হয়। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে দুই দলের লোকজন ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।
উভয় গ্রুপের আহতদের মধ্যে যাদের নাম জানা গেছে তারা হলেন-মর্তুজা, পলাশ মোল্যা, মিরাজ শেখ, আলামিন, শিমুল মোল্যা, ইয়াজুল মোল্যা, মুক্তার মোল্যাসহ অন্তত ২০ জন। এদের নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে ইয়াজুল মোল্যাসহ ৫ জনের অবস্থা গুরুতর।
উল্লেখ্য, গত ইউপি নির্বাচনের পর থেকে দুটি পক্ষের বিরোধ চলছিল। গত বছর ২০ ফেব্রুয়ারি প্রতিপক্ষের হামলায় সেই বিরোধের বলি হন মহিষখোলা গ্রামের বাসিন্দা মো. আল আমিন শেখ নামে এক মসজিদের ইমাম। সেই থেকে উভয় গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে।
এ বিষয়ে কালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ তাসমীম আলম বলেন, এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে ৬ জনকে আটক করে থানা হেফাজতে আনা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরবর্তী সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com