সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
মুখস্থ বিদ্যায় পাওয়া মূল্যহীন ডিগ্রি। মহাপরিচালক এর প্রশংসা” ব্যাজে ভূষিত হলেন ৩০জন কর্মকর্তা ভালোবাসা ও ফুলেল শুভেচ্ছায় ভাসছেন উপসচিব আলমগীর সম্পর্কের নতুন অধ্যায় নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে মার্কিন প্রতিনিধি দলের বিস্তারিত আলোচনা মাতৃগর্ভে থাকা শিশুর লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ করা যাবে না : হাইকোর্ট ‘ভূমি জোনিং ও সুরক্ষা আইন, ২০২৪’-এর খসড়া মতামতের জন্য উন্মুক্ত/খাদ্য নিরাপত্তা, পরিবেশ সুরক্ষা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবেলায় এই আইন ভূমিকা রাখবে যুব ও ক্রিড়া মন্ত্রী আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপনকে নাগরিক সংবর্ধনা রাঙ্গামাটি জেলা পুলিশের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের শুভ উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মহোদয় অমর একুশের বই মেলায় শাবানা ইসলাম বন্যার অপূর্বা কালিগঞ্জে শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন সুমন সভাপতি, তাহের সম্পাদক

ইউনিয়ন প্রতিনিধিদের নিয়ে আ’লীগের বর্ধিত সভা

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৭ জুলাই, ২০১৮, ৫.৪১ পিএম
  • ৪১১ বার পঠিত

তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের সব দ্বন্দ্ব আর অনৈক্য ঝেড়ে ফেলে একজোট হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।আগামী ডিসেম্বরে নির্বাচন হবে- সেই তথ্য জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সেই নির্বাচনেও মানুষ যেন নৌকা মার্কায় ভোট দেয়, তার জন্য জনগণের কাছে আপনাদের আবেদন করতে হবে। সে আবেদন আপনারা করবেন, সেটা আমরা চাই।’আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে শনিবার দলের ধারাবাহিক বিশেষ বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখছিলেন ক্ষমতাসীন দলের প্রধান। গণভবনে এই সভায় ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা এবং রংপুর বিভাগের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন পরিষদে দলের জনপ্রতিনিধিরা যোগ দেন।এর আগে গত ২৩ জুন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতা এবং জনপ্রতিনিধিদের এবং ৩০ ‍জুলাই চট্টগ্রাম, রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে সভা করেন দলীয় সভাপতি।প্রতিটি সভাতেই আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে নেতা-কর্মীদের করণীয় সম্পর্কে দিকনির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা। দেন দলীয় কোন্দল মেটানোর নির্দেশ। বলেন, ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে যেকোনো মূল্যে। সেই সঙ্গে সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো তুলে ধরে সেগুলো মানুষের মাঝে বারবার তুলে ধরার তাগাদা দেন তিনি।‘দ্বন্দ্ব ভুলে যেতে হবেইউনিয়নের নেতাদের শেখ হাসিনা বলেন, ‘সামনে নির্বাচন অনেক কঠিন হবে, এটা আপনাদের মনে রাখতে হবে।’‘সেই সাথে সাথে আমাদের সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে। যে দ্বন্দ্ব, সেই দ্বন্দ্ব ভুলে যেতে হবে।’কোনো আসন যেন দ্বন্দ্ব বা অবহেলার কারণে হারাতে না হয়, তার ওপরও জোর দেন প্রধানমন্ত্রী।‘দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকলে একটা ধারণা হয়ে যায়, সবগুলো তো জিতব, এই একটা না জিতলে আর কী হবে? ২০০১ এ কিন্তু এই চিন্তা ছিল। এবার যেন এর পুনরাবৃত্তি না হয়।’‘মনে রাখতে হবে একটা সিট হারানো মানে ক্ষমতা দখল আমরা করতে পারব না। এই কথাটা মনে রেখে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে কাজ করতে হবে। উন্নয়নের কথাগুলো জনগণকে বলতে হবে এবং দলকে সুসংগঠিত করতে হবে।’আওয়ামী লীগের সাথে সাথে অন্যান্য সহযোগী সংগঠনকেও শক্তিশালী করার তাগাদা দেন বঙ্গবন্ধু কন্যা। বলেন, ‘মহিলা আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ-প্রত্যেকটা সংগঠন যেন সুসংগঠিত হয় এবং নিয়ম মেনে চলে, ডিসিপ্লিন মেনে চলে। সেই বিষয়টাতে লক্ষ্য রাখতে হবে।’এই নির্বাচনে জিততে না পারলে দেশের ক্ষতি হবে বলেও সতর্ক করে দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। বলেন, ‘এই নির্বাচনে আমরা যদি জয়ী না হই তাহলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আমরা শুরু করেছি, সেই বিচার বন্ধ হয়ে যাবে। মানুষের ওপর আবার আক্রমণ আসবে। আবার বাংলাদেশকে তারা আতঙ্কিত করবে।’যাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে, তার পক্ষেই কাজ করার নির্দেশও দেয়া হয় বর্ধিত সভায়।শেখ হাসিনা বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে সবাইকে প্রস্তুত হতে হবে। যেহেতু আমরা জোট করেছিলাম অবশ্যই জোট বজায় রাখতে হবে। সবাই যেন আমাদের বিরুদ্ধে চলে না যায়, তার জন্য।’‘কিন্তু সাথে সাথে যাদেরকে আমরা নমিনেশন দেব, অবশ্যই নমিনেশনদেয়ার সময় তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে দেই। কিন্তু তার পরেও আমি সার্ভে করি। ইতিমধ্যে তিন দফা সার্ভে আমার হয়ে গেছে। সেই সার্ভের ওপর ভিত্তিতে যাকে নমিনেশন দেব, যাকেই নৌকা মার্কা দেব, তার পক্ষেই একযোগে কাজ করতে হবে যেন নৌকা না হারেপ্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের শক্তিই হচ্ছে জনগণ। জনগণকে নিয়েই আমরা রাজনীতি করি, জনগণের কল্যাণের জন্যই আমরা রাজনীতি করি। এই কথাটা সাধারণ মানুষের কাছে আপনাদের তুলে ধরতে হবে। বলতে হবে, আমরা আপনাদের কাছে ভোট চাই, আপনাদের কল্যাণে কাজ করতে চাই। আপনাদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে চাই।’‘আমরা যে উন্নয়নগুলো করেছি, মানুষকে বারবার না বললে মানুষ সেটা মনে রাখে না। তাই জনগণের কাছে আপনাদেরকে যেতে হবে এবং এই কথাগুলো বারবার মানুষকে বলতে হবে। যে আমরা এই কাজগুলো করেছি, ভবিষ্যতে আরও করব।’ জনগণের কল্যাণে কাজ করে যেতেও নেতাদের নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ প্রধান। বলেন, ‘আওয়ামী লীগ করা মানে শুধু নিজের ভাগ্য গড়া না। এটা বিএনপি-জামায়াতের কাজ। দুর্নীতি, লুটপাট, হত্যা করা, এটাই তো তাদের কাজ? নইলে কেউ এতিমের টাকা চুরি করে খেতে পারে?’ যাকে নমিনেশন দেব, যাকেই নৌকা মার্কা দেব, তার পক্ষেই একযোগে কাজ করতে হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

পুরাতন খবর

SatSunMonTueWedThuFri
     12
242526272829 
       
     12
24252627282930
       
2930     
       
    123
       
    123
25262728   
       
     12
31      
   1234
262728    
       
  12345
2728     
       
   1234
       
     12
31      
1234567
891011121314
15161718192021
2930     
       
    123
11121314151617
       
  12345
20212223242526
27282930   
       
      1
2345678
23242526272829
3031     
      1
       
293031    
       
     12
10111213141516
       
  12345
       
2930     
       
    123
18192021222324
25262728293031
       
28293031   
       
      1
16171819202122
30      
   1234
       
14151617181920
282930    
       
     12
31      
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
       
© All rights reserved © MKProtidin.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com