শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৫২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব নিলেন চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম আধুনিক সংবাদ পত্রের অগ্রদূত সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান তোয়াব খান আর সেই আজ একসঙ্গে শুটিংয়ে শাকিব-বুবলি জননেত্রী শেখ হাসিনা’র জন্মদিনে ১হাজার ৭৬টি গাছ রোপন করতে পেরে আমি ধন্য—-উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী কালিগঞ্জে মটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের ৩জনসহ ৪ মটর সাইকেল উদ্ধার করেছে পুলিশ কালিগঞ্জে শুভসংঘের কমিটি গঠন সেলিম সভাপতি ফরিদুল সম্পাদক কালিগঞ্জ উপজেলায় পূজা মন্ডপে নগদ অর্থ প্রদান করলেন এসএম জগলুল হায়দার এমপি আমার শৈশব,কৈশোর,তারুন্য যৌবনের প্রথম দিনগুলো।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হকের আজ জন্মদিন রাঙ্গুনিয়াবাসীর দোয়া চাইলেন ড. হাছান মাহমুদ
রাঙামাটি রাজবন বিহারে বৌদ্ধ ধর্মগুরু মহাসাধক বনভান্তের জন্মোৎসবে পুণ্যার্থীর ঢল ।

রাঙামাটি রাজবন বিহারে বৌদ্ধ ধর্মগুরু মহাসাধক বনভান্তের জন্মোৎসবে পুণ্যার্থীর ঢল ।

 মোঃ আবু তৈয়ব:
রাঙামাটি পার্বত্য জেলায় নানা কর্মসূচি ও ভক্তি শ্রদ্ধায় সর্বজনপূজ্য মহাসাধক বৌদ্ধ আর্য্যপুরুষ ভদন্ত শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থবির বনভান্তের ১০৩তম জন্মোৎসব উৎসব পালিত হয়েছে। জন্মোৎসব ঘিরে শনিবার সকালে (৮ জানুয়ারি) বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের তীর্থস্থান রাঙামাটি রাজবন বিহার, রতাংকুর বনবিহার, যুমচুগ বনাশ্রম বনভাবনা কেন্দ্র, ধনপাতা সাধনা বনবিহার, গর্জনতলী পাড়া শাক্যমণি বৌদ্ধ বিহারসহ বিভিন্ন শাখা বনবিহারে পালন করা হয় মহাসাধকের জন্মোৎসব।
শুক্রবার (৭ জানুয়ারী) থেকে দূর-দূরান্ত থেকে রাজবন বিহারে অগণিত পুণ্যার্থীর ঢল নামে। ভক্তকুলের শ্রদ্ধাঞ্জলির ফুলে ফুলে ছেয়ে যায় সর্বজনপূজ্য বনভান্তের নিস্প্রাণ দেহধাতু। শনিবার সকাল থেকে শুরু হয়ে সন্ধ্যায় হাজার প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও ফানুস বাতি উড়িয়ে শেষ হয় বনভান্তের ১০৩তম জন্মোৎসব।
রাত ১২টায় বনভান্তের দেহধাতুতে পুষ্পার্ঘ্য দিয়ে ভোর ৬টায় রাঙ্গামাটি রাজবন বিহার দেশনালয়ে সর্বজনপূজ্য বনভান্তের ১০৩তম জন্মোৎসবের কেক কাটেন রাজবন বিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির। কেক কাটা অনুষ্ঠানে যোগ দেন হাজার হাজার পুণ্যার্থী। নানা রঙে তৈরি তোরণ ও বেলুনে সাজানো হয় গোটা রাজবন বিহার এলাকা।
পরে সকালে বৌদ্ধ পতাকা উত্তোলন, পঞ্চশীল প্রার্থনা, বুদ্ধপূজা, ত্রিপিটক পূজা, সংঘদান, অষ্টপরিস্কার দান, বুদ্ধমূর্তি দান, প্রদীপ পূজা ধর্মীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্যদিয়ে শুরু হয় ধর্মীয় সভা। অনুষ্ঠানে যোগ দেন রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি, ও বান্দরবানসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা অগণিত ভক্ত ও পূর্ণ্যার্থীরা।
বনভান্তের অমৃতময় বাণীর উদ্ধৃতি দিয়ে পুর্ণ্যার্থীদের মাঝে ধর্মদেশনা দেন, রাজবন বিহারের আবাসিক ভিক্ষু প্রধান ভদন্ত শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির। এসময় পূর্ণ্যর্থীদের সাধু, সাধু, সাধু ধ্বনিতে বৗদ্ধদের প্রধান বৌদ্ধ তীর্থস্থান রাঙ্গামাটি রাজবন বিহার প্রকম্পিত হয়ে উঠে।
উল্লেখ্য, বৌদ্ধ ধর্মীয় এ মহাসাধকের জন্ম ১৯২০ সালের ৮ জানুয়ারি রাঙ্গামাটি সদরের ১১৫ নম্বর মগবান মৌজার মোড়ঘোনা নামক গ্রামের এক নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারে। তিনি মহামতি গৌতম বুদ্ধের পথ অনুসরণ করে ১৯৪৯ সালে গৃহত্যাগ করেছিলেন। যার পথ ধরে মহাপরিনির্বাণ লাভের মধ্যদিয়ে দেহত্যাগ করেন ২০১২ সালের ৩০ জানুয়ারি। আর বনভান্তে জীবদ্দশায় অধ্যক্ষ হিসেবে অবস্থান করেছিলেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান বৌদ্ধ তীর্থস্থান রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারে।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com