শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
ঢাকায় আসছেন নোরা ফাতেহি।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে নদীর চর থেকে অজ্ঞাত যুবকের অর্ধ গলিত মরদেহ উদ্ধার সোনারগাঁয়ে দুটি অবৈধ চুনা ফ্যাক্টরির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন  পিরোজপুরে ৪০ লক্ষাধিক টাকার উপকরণ বিতরণ করলেন DC জাহেদুর রহমান পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাসিক উন্নয়ন পর্যালোচনা সভা। হরিপুরে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ইবি প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা শুধু রিপোর্টিংই নয় রান্নাতেও পটু” ভৈরবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক দখলীকৃত ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান কালিগঞ্জে সাবেক সংসদ সদস্য কাজী মোঃ আলাউদ্দীনের দিনব্যাপী জনসংযোগ অভয়নগরে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত
সবকিছু সব সময় ভালো লাগবে না, এটিই স্বাভাবিক।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

সবকিছু সব সময় ভালো লাগবে না, এটিই স্বাভাবিক।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

আজকাল প্রায়ই শুনতে পাওয়া যায়, ‘কিছুই ভাল্লাগে না’।
সবকিছু সব সময় ভালো লাগবে না, এটিই স্বাভাবিক।
আপনার এই ভালো লাগা, না লাগায় কিছুই আসে যায় না বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের। সেই ভালো না লাগাটাকে আপনি যদি পাত্তা দেন, তাহলে আপনি পড়ে গেলেন ‘ভাল্লাগে না’র দুষ্টচক্রে। একে বলা হয় ‘ডিজকমফোর্ট অ্যাংজাইটি’। আপনার অনেক কিছুই ভালো লাগবে না। তবু আপনাকে সেটি মানিয়ে নিয়ে চলতে হবে। করলার জুস খেতে কার ভালো লাগে বলুন? তবু সেটা শরীরের জন্য জরুরি। হাই কমোড থেকে লো কমোড ভালো। আবার নরম বিছানা থেকে শক্ত বিছানা স্বাস্থ্যকর। শরীরচর্চা করে গা ঘামাতে কার ভালো লাগে? ভাজাপোড়া তো সবাই পছন্দ করে, সেটা খেলে কী হবে, নতুন করে বলার নেই। তাই আপনি যদি সুস্থ শরীর চান, আপনাকে এ ধরনের ‘ভাল্লাগে না’র ভেতর দিয়ে যেতে হবে।

‘কিছু ভালো লাগে না’ সিনড্রোম থেকে বেরিয়ে আসার জন্য প্রথমেই আপনাকে বের হয়ে আসতে হবে তুলনা করা থেকে। আপনি খুব ভালো না–ও থাকতে পারেন। কিন্তু নিশ্চিতভাবে অনেক মানুষ আছেন, যাদের অবস্থা আপনার চেয়ে অনেক খারাপ। আপনি যে অবস্থাতেই থাকুন না কেন, সব সময়ই এমন মানুষ থাকবেন, যিনি আপনার চেয়ে অনেক ভালো অবস্থায় আছেন। অনেকেই আবার আপনার চেয়ে অনেক খারাপ অবস্থায় আছেন। আপনি যদি সব সময় কেবল আপনার চেয়ে যাঁরা ভালো আছেন, তাঁদের কথা ভেবে অসন্তুষ্টিতে ভুগতে থাকেন, তাহলে আপনি কখনোই সুখী হবেন না। সব সময় সর্বাবস্থায় শুকরিয়া আদায় করতে হবে।
আপনি কিসে সুখী—এই প্রশ্নের নির্দিষ্ট উত্তর খুঁজে বের করুন। এরপর সেটি অর্জন করার জন্য অন্য কিছু ভুলে যান। সব কষ্টের কথা ভুলে যান। ‘ডিজকমফোর্ট অ্যাংজাইটি’কে এত গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই। আপনি যদি সব সময়ই মনে করেন এটা ভালো লাগছে না, সেটা ভালো লাগছে, এভাবে আপনার কিছুই ভালো লাগবে না। আর আপনি পাকাপাকিভাবে হতাশায় নিমজ্জিত হবেন। বরং উপভোগ করা শুরু করুন। লক্ষ্যকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করার পর একেকটি স্তর পার করার পর নিজেকে বাহবা দিন। নিজের জীবনযাত্রা উপভোগ করুন। মনে রাখবেন, জীবনে কোনো কিছুই বৃথা যায় না। সুন্দর ঘটনা আমাদের সুন্দর মুহূর্তের স্মৃতি দেয়। অন্যদিকে ব্যর্থতা বা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো ঘটনা আমাদের শিক্ষা দেয়। ধৈর্য আর মনোবল বাড়ায়।
চাকরি করলে কষ্ট। ব্যবসা করলেও কষ্ট। আবার বেকার বসে থাকাও কষ্টকর। ক, খ, গ, ঘ—সব অপশনেই কষ্ট আছে। আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, আপনি কোনটা চান। আর একবার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর আর কষ্টকে পাত্তা দেওয়া চলবে না। নিজের প্রাপ্তিকে স্বীকার করুন। সন্তুষ্টি প্রকাশ করুন। আপনি অসুস্থ হলে খোঁজ নেওয়ার মানুষ আছে। বাসায় ফিরতে রাত হলে চিন্তা করার মানুষ আছে, কী খাবেন, সেই চিন্তা নেই—কম কী।
সারাক্ষণ ‘কিছু ভালো লাগে না’ বলতে বলতে আপনার ভালো লাগার অনুভূতি যে চলে যাচ্ছে। নিজেকে সময় দিন। ধর্ম চর্চা আপনাকে মানসিক প্রশান্তি দেবে। ‘কিচ্ছু ভাল্লাগে না’ থেকে মুক্তির জন্য আরো প্রয়োজন আত্মোপলব্ধি।

লেখকঃ  মোঃ মমিনুল ইসলাম

                অফিসার ইনচার্জ

           আশাশুনি থানা,সাতক্ষীরা।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com