সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
ভারতের বিচার বিভাগে, ৫০,ভাগ, মহিলা বিচারপতি রাখতে জোর দাবি ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শ্রী এন এ রমনা তানোরে কৃষি কলেজ খুলে অধ্যক্ষ ইসাহাক আলী মৃধার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ  সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলায় ২৮ সেপ্টেম্বর গণটিকা প্রস্তুতি সম্পন্ন রংপুরে সাংবাদিক নেতা আফরোজা সরকারসহ ৫ জনের ওপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ রাসিক মেয়রের সাথে রুয়েট কর্মচারীদের সৌজন্য সাক্ষাৎ রাণীনগরে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক প্রেমের নৃশংসতা মানবতার জননী যেসব তথ্য সত্য হলেও লেখা যাবে না, ছাপানো যাবে না রাজশাহীর বারোরাস্তা মোড় হতে জলিলের মোড় পর্যন্ত সেকেন্ডারি ড্রেনের কাজের উদ্বোধন
রাঙামাটি৩৩টি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ছেড়ে আসার আহ্বান,প্রস্তুত২৯আশ্রয়কেন্দ্র।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

রাঙামাটি৩৩টি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ছেড়ে আসার আহ্বান,প্রস্তুত২৯আশ্রয়কেন্দ্র।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

মোঃ আবু তৈয়ব:রাঙামাটি ৩৩টি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ছেড়ে আসার আহ্বান, প্রস্তুত ২৯ টি আশ্রয়কেন্দ্র ।
দীর্ঘ বৃষ্টি লক্ষণ করে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির মহোরায় ৩৩ টি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা শনাক্ত।
 রবিবার ০৬ জুন রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রাঙামাটি জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। মধ্যরাত থেকে বৃষ্টি আরম্ভ হলে রাঙামাটি শহরে
ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা শনাক্ত করতে বেড়িয়ে পড়েন
রাঙামাটি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি ।
 পাহাড় ধ্বস প্রাণহানির মতো ঘটনা এড়াতে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে রাঙামাটিতে জরুরী সভা করেছে জেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ। জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির এই সভায় রাঙামাটি জেলায় আর কোন প্রাণ হানী না ঘটে এবং বড় ধরনের প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবেলায় সকলকে সজাগ থাকার আহবান জানিয়েছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।খুলে দেওয়া হয়েছে ২৯ টি আশ্রয় কেন্দ্র। যে কোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সকলকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে চলে যেতে বলা হয়েছে। যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করতে ও, দুর্যোগ মোকাবেলায় মাতা ঠান্ডা রেখে কাজ করতে বলা হয়।
যে সকল বৃষ্টি কবলিত ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা সেখান থেকে সড়ে আশ্রয় কেন্দ্রে চলে আসার জন্য আহবান জানান।
রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুরর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল তাপস রঞ্জন ঘোষ, জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ বিপাশ খীসা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মামুন, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীসহ বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান,গণমাধ্যমকর্মীসহ পৗর কাউন্সিলরগণ উপস্থিত ছিলেন। ২০১৭ সালের ১৩ এ জুন যে দূর্যোগ হয়েছিলো , সেই ঘটনার কথা মনে রেখে আমরা আগাম প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। কোন প্রকার দূর্যোগ দেখা মাত্র রাঙামাটির সকল প্রশাসনকে নিয়ে দূর্যোগ মোকাবেলায় কাজ করা হবে। যাতে রাঙামাটিতে আর একটিও প্রাণহানীর ঘটনা না ঘটে তার জন্য সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখার আহবান জানান।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com