রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা মেডিকেল হাসপাতালে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানের চিকিৎসা সরঞ্জাম হস্তান্তর। রাজশাহীতে চাঁদাবাজী ও সন্ত্রাস রোধে বসানো হলো পাঁচটি সিসি ক্যামেরা রাজশাহীতে নারী ও শিশু নির্যাতন পরিস্থিতির অবনতি ঘটছেঃ লফস নাটোরে স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিদের সাথে এডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ১২ হাজার ২২০ পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী দিচ্ছেন মেয়র লিটন রাজশাহীতে কলেজের চুরি যাওয়া কম্পিউটার সামগ্রী উদ্ধারঃ ০৪ জন আটক যে কোন উপায় ফিরতে হবে কর্মস্থলে! বারুইপুর জেলা পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার হল, ৩০, টি দামি মোবাইল ফোন। ফিরেছেন আসল দাবিদারদের ডায়মন্ড হারবার জেলা পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার, ১৬০,টি, মোবাইল ফোন। ফিরৎ দিলেন প্রকৃত মালিকদের বাগমারায় এমপি এনামুল হকের উদ্যোগে করোনা টিকার ভ্রাম্যমান ক্যাম্প উদ্বোধন
কলকাতা হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম মামলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর, ৫,লক্ষ, টাকা জরিমানা

কলকাতা হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম মামলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর, ৫,লক্ষ, টাকা জরিমানা

কলকাতা হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম মামলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর, ৫,লক্ষ, টাকা জরিমানা। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শ্রী কৌশিক চন্দ্র পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে নন্দীগ্রাম মামলায় কেসে পাচ লক্ষ টাকা জরিমানা করেন। এবং এই মামলায় তার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন করার জন্য তিনি এই মামলা থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে যায়। আজ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শ্রী কৌশিক চন্দ্র জানান তার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আইনজীবী, তিনি জানিয়েছেন আমি নাকি বিজেপি ঘনিষ্ঠ তাই তার কাছে নিরপেক্ষ বিচার পাওয়া যাবে না। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর আইনজীবী এই বিচার ব্যবস্থার প্রতি প্রশ্ন তোলার ও বিচারপতি প্রতি নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে পাচ লক্ষ টাকা জরিমানা দিতে হবে কলকাতা হাইকোর্টের বার কাউন্সিল কাছে। ঔ জরিমানা টাকা খরচ করতে হবে রাজ্যের কোভিড কোরনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে। সেই সঙ্গে বিচারপতি শ্রী কৌশিক চন্দ্র তার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার জন্য তিনি এই কেস হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি শ্রী রাজেশ জিন্দাল বেঞ্চ পাঠিয়ে দেন। এই ঘটনার পর কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী এবং তৃনমূল দলের সংসদ সদস্য শ্রী সুখেন্দু শেখর রায় বলেন যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে যে জরিমানা করা হয়েছে তা গনতন্ত্র পক্ষ শুভ নয়। তাই এই রায়ের বিরুদ্ধে তারা ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি কাছে আবেদন জানাবেন বলে জানিয়েছেন।। তবে বিচার ব্যবস্থার প্রতি আঙ্গুল তোলার ঘটনা বহু বার দেখা গিয়েছে কি সরকার পক্ষের নেতা মন্ত্রীদের মধ্যে কি বিরোধী দলের সংসদ সদস্য ও নেতা মন্ত্রীদের মধ্যে। এই ব্যবস্থা যদি চলতে থাকে তাহলে সাধারণ মানুষের কাছে বিচার ব্যবস্থার প্রতি ভুল ধারণা এসে যাবে বলে মনে করেন কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবীরা।। কলকাতা শহর থেকে নিজেউ দাতা মনোয়ার ইমাম।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com