বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
সোনারগাঁয়ে দুটি অবৈধ চুনা ফ্যাক্টরির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন  পিরোজপুরে ৪০ লক্ষাধিক টাকার উপকরণ বিতরণ করলেন DC জাহেদুর রহমান পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাসিক উন্নয়ন পর্যালোচনা সভা। হরিপুরে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ইবি প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা শুধু রিপোর্টিংই নয় রান্নাতেও পটু” ভৈরবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক দখলীকৃত ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান কালিগঞ্জে সাবেক সংসদ সদস্য কাজী মোঃ আলাউদ্দীনের দিনব্যাপী জনসংযোগ অভয়নগরে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত পিরোজপুর আলামকাঠি গুলজার জামে মসজিদের জায়গা জবরদখলের অভিযোগে মসজিদ কমিটির সংবাদ সন্মেলন কালিগঞ্জের কালিন্দী নদীতে চিংড়ির রেণু ধরতে গিয়ে জেলে নিখোঁজ
অসম সরকারের বিরুদ্ধে মুসলিমদের উপর ভূয়া এনকাউন্টারে অভিযোগ।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

অসম সরকারের বিরুদ্ধে মুসলিমদের উপর ভূয়া এনকাউন্টারে অভিযোগ।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

অসম সরকারের বিরুদ্ধে মুসলিমদের উপর ভূয়া এনকাউন্টারে অভিযোগ আনলেন মানবাধিকার কমিশনে, আইনজীবী আরিফ জোয়ার্দার। আজ ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আরিফ জোয়ার্দার অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশরমার ও তার পুলিশের গুলিতে প্রায়, ২০, জন মুসলিম সম্প্রদায়ের যুবক ভূয়া এনকাউন্টারে মারা গেছেন বলে অভিযোগ আনলেন ভারতের মানবাধিকার কমিশনে। তার দাবি গত দুই মাস আগে অসম সরকারের ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি। এবং অসম সরকারের মুখ্যমন্ত্রী হন শ্রী হিমন্ত বিশ্বশরমা। তিনি ক্ষমতায় আসার পর থেকে শুরু করে গত, ১,লা, জুন মাস থেকে গত রবিবার পযন্ত মোট কুড়ি জন মুসলিম সম্প্রদায়ের যুবক ভূয়া এনকাউন্টারে মারা গেছেন। কাউকে উগ্রবাদী ও কাউকে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে ধরে নিয়ে গিয়ে এনকাউন্টারে মেরে ফেলা হয়। এমন ঘটনা নিয়ে ভারতের মানবাধিকার কমিশনে কাছে তার তদন্ত ও বিচার চেয়ে আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আরিফ জোয়ার্দার। তার দাবি বিশেষ করে বেছে বেছে মুসলিম সম্প্রদায়ের যুবকদের এনকাউন্টারে মারা হচ্ছে। কিছুদিন আগে অসম রাজ্যের কোকড়াঝাড় ও নওগাঁ জেলার এমন একটি ঘটনা ঘটে। যা নিরপরাধ মুসলিম সম্প্রদায়ের যুবক কে ভূয়া এনকাউন্টারে মারা হয়। তার দাবি পুলিশ কেন এমন কাজ করছে তার বিচার চেয়েছেন। আরিফ জোয়ার্দার এর অভিযোগ ভিক্তিতে তদন্ত সঠিক ভাবে হবে কি না সেটাই দেখার। এদিকে অসম পুলিশ ও অসম রাজ্যে সরকার আরিফ জোয়ার্দার দাবি কে উড়িয়ে দিয়েছেন। অসম পুলিশের দাবি উগ্রবাদী ও মাদক ব্যবসায়ী কোন জাত পাতের হয় তা জানা যায় না। কেউ যদি উগ্রবাদী ও মাদক ব্যবসায়ী কে ধরতে যান তখন যদি উগ্রবাদী ও মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশ কে লক্ষ্য করে গুলি চালায় তখন পুলিশ নিজেদের জীবন বাঁচাতে পাল্টা গুলি চালায়। তবে অসম রাজ্যের মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ যে বিজেপি শাসিত রাজ্যেতে ভালো আছেন তা একেবারে ঠিক নয় বলে অভিযোগ আনলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আরিফ জোয়ার্দার।। ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com