বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১২:৩৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
নেছারাবাদে “যোগাযোগ দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ” অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে জেলা পুলিশের একাধিক অভিযানে আটক-২ ইয়াবা ও গাজা উদ্ধার বাংলাদেশের গর্বের, স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হতে যাচ্ছে আগামী ২৫ জুন ২০২২ তারিখে টাঙ্গাইলের মধুপুরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত র‌্যাব -৭, চট্টগ্রামের অভিযানে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার পিস ইয়াবাসহ ০৩ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী আটক। সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলমের মৃত্যুতে বিএমএসএফ’র গভীর শোক ও সমবেদনা দিগন্ত ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও সম্পাদক পুনরায় বহাল ৬৯ নং মধ্য যৌতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ দেখে হতাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২২ প্রেস কনফারেন্স, বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে রাজস্ব প্রশাসনের শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা/ কর্মচার্রীদের পুরস্কার বিতরণ আগামী ১৮ জুন স্বরূপকাঠি উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন সফল করার আহবান জানান।
এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশাল রানের ব্যবধানে জয় পেল বাংলাদেশ

এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশাল রানের ব্যবধানে জয় পেল বাংলাদেশ

শনিবার দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিং তোপে শ্রীলঙ্কান ব্যাটিংয়ে ধস নামে। ব্যাটিংয়ে মুশফিকুর রহিমের সেরা সেঞ্চুরি আর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে ১৩৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে উদ্বোধনী ম্যাচে শুভ সূচনা করল বাংলাদেশ।

মাত্র ১২৪ রানে ইনিংস গুটিয়ে নেয় তারা। লঙ্কানদের পক্ষে সর্বোচ্চ সংগ্রহ দিলরুয়ান পেরেরার, তিনি করেন ২৯ রান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উপুল থারাঙ্গার (২৭)। অন্যরা ছিলেন আসা-যাওয়ায়।

মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ দুটি করে উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষের ব্যাটিংয়ে ধস নামান। আর একটি করে উইকেট পান সাকিব আল হাসান, রুবেল হোসেন ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

এর আগে মুশফিকুর রহিমের দারুণ শতকে বাংলাদেশ ২৬১ রান করে। মুশফিক ১৪৪ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলেন, বল খেলেছেন ১৫০টি। আর ১১টি চার ও চারটি ছক্কার মার দিয়ে ইনিংসটাকে সাজিয়েছেন তিনি।

অবশ্য ইনিংসের প্রথম ওভারেই লঙ্কান বোলিং তোপে পড়েছিল বাংলাদেশ। লাসিথ মালিঙ্গার সে ওভারের চতুর্থ বলে ওপেনার লিটন দাস স্লিপে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান কোনো রান না নিয়েই। ওয়ানডাউনে নামা সাকিব আল হাসান পরের বলেই আউট হন শূন্য রানে।

হাতে ব্যথা পেয়ে ওপেনার তামিম ইকবালও ফিরে যান সাজঘরে। পেসার সুরাঙ্গা লাকমলের বল তাঁর গ্লাভসে লাগে। ব্যথা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল এই বাঁহাতি ওপেনারকে। কিন্তু বিস্ময় ছড়িয়ে ইনিংসের শেষ মুহূর্তে ব্যাটিংয়ে নামেন তিনি। তাঁর সহযোগিতার কারণে বাংলাদেশের পক্ষে গড়া সম্ভব হয়েছিল এই চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ।

এরআগে দলীয় ১৩৪ রানের মাথায় ৬৮ বলে ৬৩ রান করে মিঠুন সাজঘরে ফিরেছিলেন। আর মাহমুদউল্লাহ চার বলে ১ রান করে আউট হন। সৈকতও আউট হন ১ রান করে।

এর পরই দলের বিপর্যয় এড়াতে দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন মুশফিকুর রহিম। তরুণ মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে দারুণ একটি জুটি গড়েন। পরে তামিমকে সঙ্গে নিয়ে শেষ মুহূর্তে ঝড় তুলে দলের ইনিংসটাকে এই পর্যায়ে নিয়ে যেতে মূল ভূমিকা রাখেন।

মুশফিকের এটি ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে সেঞ্চুরি। আর ওয়ানডেতে এটি তাঁর সর্বোচ্চ ইনিংসও।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com