বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
মঠবাড়িয়ার ধর্ষণে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্বা ॥ ধর্ষক গ্রেফতার কালিগঞ্জে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে নেছারাবাদে “যোগাযোগ দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ” অনুষ্ঠিত ঝালকাঠিতে জেলা পুলিশের একাধিক অভিযানে আটক-২ ইয়াবা ও গাজা উদ্ধার বাংলাদেশের গর্বের, স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হতে যাচ্ছে আগামী ২৫ জুন ২০২২ তারিখে টাঙ্গাইলের মধুপুরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত র‌্যাব -৭, চট্টগ্রামের অভিযানে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার পিস ইয়াবাসহ ০৩ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী আটক। সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলমের মৃত্যুতে বিএমএসএফ’র গভীর শোক ও সমবেদনা দিগন্ত ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও সম্পাদক পুনরায় বহাল ৬৯ নং মধ্য যৌতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ দেখে হতাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।
ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষণ,১৫ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামি

ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষণ,১৫ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামি

 

ঠাকুরগাঁওয়ে বিস্কুট এর প্রলোভন দেখিয়ে এক তৃতীয় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে (০৯) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে ৫০ বছর বয়সী ব্যক্তির বিরুদ্ধে।
গত ৩০ জানুয়ারী ভুক্তভোগী ছাত্রীর পিতা ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় মামলা করেন।

মামলার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত মামলার আসামি আটক হয়নি। বর্তমানে মামলা তুলতে হুমকি দিচ্ছে মনিরুল ইসলামর পরিবার।

ওই ছাত্রীর বাড়ি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার গড়েয়া ইউনিয়নে। সে স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

থানায় অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আসামি গড়েয়া ইউনিয়নের উত্তর ঢাংগীপুকুর এলাকার পিতা মৃত আঃ কাদের এর ছেলে মনিরুল ইসলাম (৫০) গত ১৩ই জানুয়ারী স্কুল থেকে আসার পথে মনিরুল ইসলামের একটি মুদি দোকান আছে। ,ওই দোকানে থেকে স্কুল ছাত্রী ১০টাকা দিয়ে বিস্কুট কিনতে চায়,ঐ সময় দোকানের আশেপাশে কেউ না থাকায় কৌশলে স্কুল ছাত্রীকে দোকান সংলগ্ন নিজের শয়ন ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে, মেয়ে চিৎকারের চেষ্টা করলে ঘটনা কাওকে না বলার জন্য ভয় দেখায়।

স্থানীয়রা অনেকেই বলেন, এ ধরনের ঘটনায় জড়িত মনিরুলকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক। শাস্তি হলে এরকম ঘটনা ঘটাতে কেউ সাহস পাবে না

ওই ছাত্রী বলেন, স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে ওই বেটার দোকান, আমরা মাঝেমধ্যে এই দোকান থেকে বিস্কুট, চকলেট কিনে খায়, ওই দিন আমাকে জোর করে তার ঘরে নিয়ে যায়।
পরে কাওকে কিছু না বলার জন্য ভয় দেখায় এবং আমি আসার সময় আমার হাতে ৫টা চকলেট ও ২০টাকা দিয়ে বলে তার সাথে মাঝেমাঝে দেখা করতে। আমি এর বিচার চাই।

ছাত্রীর বাবা বলেন, আমার মেয়ের সঙ্গে মনিরুল খুব খারাপ কাজ করছে আমি ভ্যান চালিয়ে খায়, আমি স্থানীয় এলাকাবাসীর কাছে বিচার চেয়েছিলাম কিন্তু কেউ আমার মেয়ের বিচার করে নাই, তাই আমি মামলা করেছি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার পুলিশ কর্মকর্তা (এস আই) বিদুৎ বলেন, এই ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। মামলার আসামি মনিরুল পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com