সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
ভারতের বিচার বিভাগে, ৫০,ভাগ, মহিলা বিচারপতি রাখতে জোর দাবি ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শ্রী এন এ রমনা তানোরে কৃষি কলেজ খুলে অধ্যক্ষ ইসাহাক আলী মৃধার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ  সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলায় ২৮ সেপ্টেম্বর গণটিকা প্রস্তুতি সম্পন্ন রংপুরে সাংবাদিক নেতা আফরোজা সরকারসহ ৫ জনের ওপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ রাসিক মেয়রের সাথে রুয়েট কর্মচারীদের সৌজন্য সাক্ষাৎ রাণীনগরে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক প্রেমের নৃশংসতা মানবতার জননী যেসব তথ্য সত্য হলেও লেখা যাবে না, ছাপানো যাবে না রাজশাহীর বারোরাস্তা মোড় হতে জলিলের মোড় পর্যন্ত সেকেন্ডারি ড্রেনের কাজের উদ্বোধন
নড়াইলে বাসের ভিতর অজ্ঞান করে লক্ষ টাকা ছিনতাই।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

নড়াইলে বাসের ভিতর অজ্ঞান করে লক্ষ টাকা ছিনতাই।।মানুষের কল্যাণে প্রতিদিন

উজ্জ্বল রায়, জেলা প্রতিনিধি নড়াইল থেকে:
নড়াইলের শিংগা শৈলপুর ইউনিয়নের নলদীরচর গ্রামের মৃতঃ নিয়ামত খাঁনের ছেলে
বিলু খাঁন (৫০) কে চেতনানাশক ঔষুধ ব্যবহার করে অজ্ঞান করে ৯৭ হাজার ২০০
টাকা ছিনতাই করেছে দূর্বৃত্তরা। বিলু খাঁনের ভাই জামশেদ খান জানান বেলা
৩টার দিকে আমার মোবাইল ফোনে অপরিচিত একটি নম্বর থেকে জানানো হয় আপনার
ভাইকে অচেতন অবস্থায় গড়ের ঘাট এলাকায় বাস থেকে নামিয়ে রেখে গেছে। আমি
ভাইয়ের সাথে কথা বলতে চাইলে ভাইকে ফোন দেয় কিন্তুু ভাইয়ের কথা যেন কেমন
লাগছিল। তখন ওই এলাকার আমাদের পরিচিত লোকদের পাঠাই আমার ভাই কিনা সঠিক
করে জানার জন্য। তারা যেয়ে আমাদের জানান তোমার ভাই শুধু ইশারা করে
দেখাচ্ছে কথা পরিস্কার করে বলতে পারছেনা। তখন আমরা দ্রুত যেয়ে এনে অজ্ঞান
অবস্থায় নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করি।
বিলু খাঁনের ভাই নিলু খাঁন জানান আমার ভাই ৯৭ হাজার ২০০ টাকা নিয়ে
মাইজপাড়া হাট থেকে গরু ক্রয়ের জন্য বাড়ি থেকে বেলা ১টার দিকে রওনা হয়ে
নড়াইল পুরাতন বাস টার্মিনাল থেকে লোকাল বাসে চড়ে যায়। বাসের ভিতর থেকে
তাকে নাকে চেতনানাশক ঔষুধ দিয়ে অজ্ঞান করে গরু ক্রয়ের টাকা নিয়ে যায়।
তিনি আরো অভিযোগ করেন এ চক্রের সাথে বাসের ড্রাইভার সুপার ভাইজার ও
হেলপার জড়িত থাকতে পারে। তানাহলে ভাই নামবে মাইজপাড়া গরুর হাটে অথচ তাকে
নামিয়েছে আরো অনেক দুরে।
বিলুু খাঁনকে মাইজপাড়া বাসষ্টান্ডে না নামিয়ে দুরে ফাকা স্থানে নামানোর
বিষয়ে জানতে চাইলে সাতক্ষিরা-জ-০৪-০০১৪ নং বাসের ড্রাইভার মাহাবুর
জানান,আমি গাড়ির ড্রাইভার আমাকে সুপারভাইজার রেজোয়ান ও হেলপার বলেছিল সে
মনে হয় ঘুমাচ্ছিল তাই এখানেই নামান।
বিলু খাঁনের শারিরিক অবস্থার বিষয়ে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ
মিজানুর রহমান বলেন,তাকে চেতনানাশক ঔষুধ খাওয়ানো হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা
দেওয়া হয়েছে। কয়েক ঘন্টা পরে হয়তো জ্ঞান ফিরে পাবে। তানাহলে উন্নত
চিকিৎসার জন্য রিফার্ড খুলনায় করবো।
এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শওকত কবির
বলেন,বিষয়টা আপনার কাছ থেকে শুনলাম, লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে। উজ্জ্বল রায়, জেলা প্রতিনিধি নড়াইল থেকে।
Print Friendly, PDF & Email

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © MKProtidin.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com